মঙ্গলবার, জুন ১৮, ২০২৪

আনসার ভিডিপি কর্মকর্তা ফরিদুল আলম ও আর্জিনা বেগমের বিরুদ্ধে অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ

বার্তা পরিবেশক:
রামু উপজেলা আনসার ভিডিপি’র সাবেক কর্মকর্তা ফরিদুল আলম ও তার স্ত্রী বর্তমান রামু উপজেলা প্রশিক্ষিকা আর্জিনা বেগমের বিরুদ্ধে একাধিক অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে।

মঙ্গলবার (২৫ জুলাই) আনসার ভিডিপি’র এই দুই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বিপন বড়ুয়া সহ একাধিক আনসার ভিডিপি সদস্য তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন।

অভিযোগকারী বিপন বড়ুয়া বলেন, “ফরিদুল আলম ও আর্জিনা বেগম রামু আনসার ভিডিপি অফিসে একসাথে কর্মরত থাকা অবস্থায় আমার দলনেতার পদ জাতীয় ও স্থায়ী করার কথা বলে ৩ লক্ষ টাকা দাবি করে। আমি তাদের দাবিকৃত টাকা দিতে অপারগতা জানালে তারা আমার প্রতি ক্ষিপ্ত হয়ে আমাকে দলনেতার পদ থেকে ষড়যন্ত্র মূলক অভিযোগ দিয়ে অপসারণ করায়”।

বিপন বড়ুয়া আরও জানান,” বিগত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন চলাকালীন সময়ে তৎকালীন রামু উপজেলা আনসার ভিডিপি কর্মকর্তা ফরিদুল আলম ও রামু উপজেলা আনসার ভিডিপি প্রশিক্ষিকা আর্জিনা বেগম জেলা কমান্ড্যাটকে টাকা দিতে হবে বলে সকল আনসার ভিডিপি সদস্য থেকে ৫০০ থেকে ৬০০ টাকা করে ঘুষ গ্রহণ করে”।

এদিকে অভিযোগের সত্যতা জানতে ফরিদুল আলম ও আর্জিনা বেগমের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তারা দু’জনই সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, নিবার্চন হয়েছে দুই বছর আগে। এ রকম কোনো ঘটনা হয়নি, না হলে অনেক আগেই বিষয়টি উঠে আসতো।

এর আগে বিপন বড়ুয়া আনসার ভিডিপি’র মহাপরিচালক বরাবর অভিযোগ দিলে তার পরিপ্রেক্ষিতে ২৫ জুলাই কক্সবাজার জেলা আনসার ভিডিপি’র মনিটরিং কর্মকর্তা জহিরুল আলম সরেজমিনে তদন্তে আসলে ফরিদুল আলম ও আর্জিনা বেগমের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ করেন একাধিক ভুক্তভোগী আনসার ভিডিপি সদস্য । তদন্ত শেষে জহিরুল আলম জেলা আনসার ভিডিপি কমান্ড্যাট বরাবর লিখিত অভিযোগ দেওয়ার পরামর্শ দেন ভুক্তভোগীদের।

এ বিষয়ে কক্সবাজার আনসার ভিডিপি’র জেলা কমান্ড্যাট অম্লান জ্যোতি নাগ মুঠোফোনে জানান, “লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্তের মাধ্যমে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে”।

আরও

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সর্বশেষ খবর