শনিবার, জুন ১৫, ২০২৪

‘পুষ্টিকর খাদ্য খেলে রোগ ব্যাধী হবে না, স্মার্ট হবে বাংলাদেশ’- কক্সবাজারে জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহ উদ্বোধনকালে বক্তারা

বার্তা পরিবেশক
পুষ্টির অভাব হলে একজন মানুষ পরিপূর্ণ স্বাস্থ্যবান হতে পারে না। নানা রোগ ব্যাধী বাসা বাঁধে শরীরে। তাই পুষ্টিকর খাবার খেলে মানুষ যেমন সুস্থ থাকবে, তেমনি দেশ উন্নয়নে এগিয়ে যাবে। দেশকে স্মার্ট করার পূর্ব শর্ত হচ্ছে সবার মাঝে পুষ্টি খাবার নিশ্চিত করা। জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহ উদ্বোধনকালে বক্তারা এসব কথা বলেন।
কক্সবাজারে জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহ উদ্বোধনকালে বক্তারা এসব কথা বলেন।

মজবুত হলে পুষ্টির ভিত স্মার্ট বাংলাদেশ হবে নিশ্চিত- এই প্রতিপাদ্য বিষয়কে সামনে রেখে দেশব্যাপী জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের উদ্যোগে এবং নিউট্রিশন ইন্টারন্যাশনাল ও ইউনিসেফ-এর কারিগরি সহযোগিতায় জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহ-২০২৩ এর জেলা পর্যায়ের কর্মসূচির উদ্ভোধনী অনুষ্ঠান ও আলোচনা সভা ৭ জুন কক্সবাজার জেলার ইপিআই স্টোর সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।।

উক্ত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন কক্সবাজার জেলার সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ মাহবুবুর রহমান। কক্সবাজার সিভিল সার্জন অফিস কর্তৃক আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মোঃ কবির হোসেন, জেলা প্রাণিসম্পদ দপ্তরের কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ সাহাবউদ্দিন, জেলা ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপ-পরিচালক, ফাহমিদা বেগম,জেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক, সুব্রত বিশ্বাস, জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ নাসির উদ্দিন, জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক রূপান্তর চাকমা, ইউনিসেফের কোর্ডিনেশন এন্ড টেকনিক্যাল সাপোর্ট স্পেশালিস্ট মোঃ: শাহ আলম। এছাড়া অনুষ্ঠানে জেলা সমাজসেবা অধিদপ্তর, জেলা পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তর, জেলা ত্রাণ ও পূর্নবাসন বিভাগ, কক্সবাজার পৌরসভা ও জেলা যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরসহ বিভিন্ন সরকারি বিভাগের জেলা পর্যায়ের কর্মকর্তা, মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক, উন্নয়ন সহযোগি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা এবং প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার প্রতিনিধিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সভার শুরতেই কক্সবাজার জেলার সিভিল সার্জন ডাঃ মাহবুবুর রহমান জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহ – ২০২৩ এর জেলা পর্যায়ের কার্যক্রমের শুভ উদ্ভোধন ঘোষনা করেন এছাড়াও তিন তার স্বাগত বক্তব্যে ২০৪১ সালের মধ্যে সরকার ঘোষিত স্মার্ট বাংলাদেশ গঠনে পুষ্টির গুরুত্ব বিষয়ে আলোকপাত করেন এবং এক্ষেত্রে দ্বিতীয় জাতীয় পুষ্টি কর্মপরিকল্পনা (২০১৬-২০২৫) অনুযায়ী স্বাস্থ্য বিভাগের পাশাপাশি কৃষি, মৎস্য, প্রাণিসম্পদ, খাদ্য, পরিবার পরিকল্পনা, মহিলা বিষয় বিভাগসহ বিভিন্ন উন্নয়ন সহযোগি সংস্থা ও গণমাধ্যমের ভূমিকার গুরুত্ব নিয়ে আলোচনা করেন। কক্সবাজার জেলা সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল অফিসার ডাঃ মোঃ ইমরুল কায়েস জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহ-২০২৩ উপলক্ষ্যে কক্সবাজার জেলা সিভিল সার্জন অফিস কর্তৃক গৃহিত ৭ দিনব্যপি বিভিন্ন অনুষ্ঠানের সংক্ষিপ্ত বিবরণ সভায় উপস্থাপন করেন। সভার পরবর্তী অংশে কক্সবাজার জেলার বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তা ও উন্নয়ন সহযোগি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাবৃন্দ তাদের বক্তব্যে জাতীয় ‍পুষ্টি সপ্তাহ-২০২৩ এর বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা করে এবং জাতীয় ‍পুষ্টি সপ্তাহ-২০২৩ উদযাপন উপলক্ষ্যে তাদের নিজেস্ব বিভাগের পরিকল্পনা উপস্থাপন করেন এছাড়াও বক্তারা তাদের আলোচনায় কক্সবাজার জেলার পুষ্টি পরিস্থিতি বিশেষত মা, শিশু ও কিশোর-কিশোরীদের পুষ্টি পরিস্থিত উন্নয়ন এবং জনগণের মধ্যে পুষ্টি গুরুত্ব বৃদ্ধির লক্ষ্যে চলমান বিভিন্ন কর্মসূচির সারসংক্ষেপ তুলে ধরেন।

সভার সমাপনি বক্তব্যে কক্সবাজার জেলার সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ মাহবুবুর রহমান বলেন, দেশে বর্তমানে অসংক্রামক ব্যাধির (যেমন ডায়বেটিক, হৃদরোগ, উচ্চরক্তচাপ, কিডনী জনিত সমস্যা) হার প্রতিনিয়ত বৃদ্ধি পাচ্ছে যা আগামী দিনগুলোতে আরো মারাত্বক আকার ধারন করতে পারে এবং এই পরিস্থিতির উন্নয়নের জন্য দরকার জনগনের মধ্যে নিরাপদ ও পুষ্টিকর খাদ্য গ্রহনের বিষয়ে ব্যাপক সচেতনা সৃষ্টি করা যা কেবল এককভাবে স্বাস্থ্য বিভাগের মাধ্যমে সম্ভব নয়। এক্ষেত্রে তিনি তার বক্তব্যে বহুখাত ভিত্তিক সহযোগিতার উপর গুরুত্ব আরোপ করেন এবং স্বাস্থ্য বিভাগের পাশাপাশি অন্যান্য সকল বিভাগকে একযোগে কাজ করার আহব্বান জনান । এক্ষেত্রে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের সার্বিক সহযোগিতার প্রতিশ্রুতি পূনব্যক্ত করেন এবং জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহ-২০২৩ উপলক্ষ্যে গৃহিত সকল কর্মসূচিতে সকলের সক্রিয় অংশগ্রহন ও সহযোগিতা প্রত্যাশা ব্যক্ত করে সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোষনা করেন

আরও

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সর্বশেষ খবর