শুক্রবার, ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২৪

কক্সবাজার থেকে শিশু অপহরণ, কিশোরগঞ্জ থেকে কথিত স্বামী-স্ত্রী আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক :
চক্রের পূর্ব-পরিকল্পনা অনুযায়ী কক্সবাজার সদর উপজেলার ঝিলংজা ইউনিয়নের বাংলাবাজার এলাকায় স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে বাসা ভাড়া নেন আঁখি আক্তার ওরফে মীম (২৭) ও ছৈয়দ হোসেন (৪৩)। তারপর প্রতিবেশী আবু ছৈয়দ আজাদের ৫ মাসের শিশু সন্তানকে অপহরণের ফাঁদ পেতে বসেন। তারই অংশ হিসেবে প্রতিবেশীর পরিবারের সঙ্গে গড়ে তুলেন ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক। যাতায়াত শুরু করেন নিয়মিত। এক পর্যায়ে ৫ মাসের সিফাতকে অপহরণের পর পালিয়ে যান মীম ও তার কথিত স্বামী ছৈয়দ হোসেন।

শিশু সিফাতকে অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার ও অপহরকারী দুজনকে গ্রেফতার করার পর বৃহস্পতিবার (১১ জানুয়ারি) দুপুরে এক প্রেস ব্রিফিং করে এসব তথ্য জানান পুলিশ সুপার মো. মাহফুজুল ইসলাম।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- রামু উপজেলার কাওয়ারখোপ ইউনিয়নের উখিয়ারঘোনা এলাকার হেলিম মিয়ার স্ত্রী আঁখি আক্তার ওরফে মীম ও তার কথিত স্বামী একই এলাকার মৃত মালেকুজ্জামানের ছেলে ছৈয়দ হোসেন (৪৩)।

পুলিশ জানায়, গেল ৩১ ডিসেম্বর সন্ধ্যার দিকে শিশু সিফাতকে কৌশলে অপহরণ করে পালিয়ে যান মীম ও ছৈয়দ হোসেন। ওইদিন রাতেই কক্সবাজার সদর মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন সিফাতের বাবা আবু ছৈয়দ আজাদ। প্রাথমিক তদন্ত শেষে আসামিদের অবস্থান শনাক্তের পর গেল ৮ জানুয়ারি সদর সার্কেলের এডিশনাল এসপি মো. মিজানুর রহমানের নির্দেশনায় উপ-পরিদর্শক আব্দুল আজিজ ও উপ-পরিদর্শক ইব্রাহীম খলিল অপহৃত সিফাতকে উদ্ধারে অভিযান শুরু করেন। তারই অংশ হিসেবে কিশোরগঞ্জের ভৈরব থানার শিবপুর ইউনিয়ন থেকে শিশু সিফাতকে অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। সেখান থেকে অপহরণকারী মীম ও চট্টগ্রামের একটি বাসা থেকে তার কথিত স্বামী ছৈয়দ হোসেনকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।

মামলাটির তদন্ত কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক আব্দুল আজিজ বলেন, ” প্রতিবেশীর শিশুকে অপহরণের উদ্দেশ্যে বাসা ভাড়া নেন দুজন। তারপর নিয়মিত যাতায়াত ও শিশুটিকে আদর-যত্ন নিতেন। এক পর্যায়ে অপহরণ করে নিয়ে আত্মগোপন করে। মামলাটির দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকে আসামিদের গ্রেফতারে তৎপরতা শুরু হয়। আসামীরা প্রথমে চট্টগ্রাম ও পরে কিশোরগঞ্জে নিয়ে যায় শিশুটিকে। সেখান থেকেই আমরা তাকে উদ্ধার করতে সক্ষম হই। “

কক্সবাজারের পুলিশ সুপার মো. মাহফুজুল ইসলাম বলেন, ” অপরাধ করে কক্সবাজার থেকে কেউ পার পাবে না। তারই একটি উদাহরণ শিশু সিফাত অপহরণ। পুলিশ ব্যর্থ চেষ্টা করে তাকে উদ্ধার করেছে। শিশুটি পরিবারের কাছে হস্তান্তর ও আসামিদের আদালতে সোপর্দ করা হবে বলেও জানান পুলিশ সুপার। “

আরও

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সর্বশেষ খবর